ঢাকা , বুধবার, ১৭ জুলাই ২০২৪, ১ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

আন্দোলনের মাধ্যমেই খালেদা জিয়াকে মুক্ত করা হবে: সমমনা জোট

‘গুরুতর অসুস্থ খালেদা জিয়াকে অবিলম্বে মুক্তি না দিলে সামনে আন্দোলন আরও জোরদার করা হবে। আন্দোলনের মধ্যদিয়েই খালেদা জিয়াকে মুক্ত করা হবে।’

আজ বুধবার রাজধানীর জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে বিক্ষোভ সমাবেশে এ হুঁশিয়ারি দেন জাতীয়তাবাদী সমমনা জোটের সমন্বয়ক ও ন্যাশনাল পিপলস পার্টির (এনপিপি) চেয়ারম্যান ড. ফরিদুজ্জামান ফরহাদ।

‘বিএনপি চেয়ারপারসন ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়ার নিঃশর্ত মুক্তির দাবি এবং ভারতের সঙ্গে অসম চুক্তি-সমঝোতা স্মারক’-এর প্রতিবাদে জাতীয়তাবাদী সমমনা জোট এই কর্মসূচির আয়োজন করে। সমাবেশ শেষে মিছিল নিয়ে প্রেস ক্লাবের সামনে সড়ক প্রদক্ষিণ করে জোটটি।

সমাবেশে সভাপতির বক্তৃতায় ড. ফরিদুজ্জামান ফরহাদ বলেন, ‘খালেদা জিয়াকে মিথ্যা মামলায় সাজা দেওয়া হয়েছে। সরকার নির্বাহী আদেশে তাকে সাময়িক মুক্তি দিলেও কার্যত তিনি কারাবন্দি। তিনি আজ গুরুতর অসুস্থ, হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। অবিলম্বে বিদেশে তার উন্নত চিকিৎসা দরকার। কিন্তু শুধু রাজনৈতিক প্রতিহিংসার কারণে সরকার তাকে বিদেশে চিকিৎসার সুযোগ দিচ্ছে না। তার মুক্তি আন্দোলন এখনো চলছে। তাকে আন্দোলনের মাধ্যমেই মুক্ত করা হবে।’

তিনি বলেন, ‘ভারতের সঙ্গে অসম সমঝোতা স্মারকগুলোতে বাংলাদেশের কোনো লাভ হবে না। রেল ট্রানজিটের নামে কার্যত ভারতকে করিডোর দেওয়া হয়েছে। অবিলম্বে দেশের স্বার্থবিরোধী এসব চুক্তি বাতিল করতে হবে।’

চলমান কোটাবিরোধী আন্দোলন ‘যৌক্তিক’ দাবি করে ফরিদুজ্জামান বলেন, ‘সরকারি চাকরিতে কোটা বাতিলের দাবিতে শিক্ষার্থীদের চলমান আন্দোলন অত্যন্ত যৌক্তিক। অবিলম্বে তাদের দাবি মেনে নেওয়া উচিত।’

এনপিপির মহাসচিব মোস্তাফিজুর রহমান মোস্তফার সঞ্চালনায় সমাবেশে আরও বক্তব্য দেন- সমমনা জোটভুক্ত জাগপার সভাপতি খন্দকার লুৎফর রহমান, সাধারণ সম্পাদক এসএম শাহাদাত, গণদলের চেয়ারম্যান গোলাম মওলা চৌধুরী, ন্যাশনাল ডেমোক্রেটিক পার্টির (এনডিপি) চেয়ারম্যান আবু তাহের প্রমুখ।

আন্দোলনের মাধ্যমেই খালেদা জিয়াকে মুক্ত করা হবে: সমমনা জোট

আপডেট সময় ০৬:১৯:২৬ অপরাহ্ন, বুধবার, ১০ জুলাই ২০২৪

‘গুরুতর অসুস্থ খালেদা জিয়াকে অবিলম্বে মুক্তি না দিলে সামনে আন্দোলন আরও জোরদার করা হবে। আন্দোলনের মধ্যদিয়েই খালেদা জিয়াকে মুক্ত করা হবে।’

আজ বুধবার রাজধানীর জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে বিক্ষোভ সমাবেশে এ হুঁশিয়ারি দেন জাতীয়তাবাদী সমমনা জোটের সমন্বয়ক ও ন্যাশনাল পিপলস পার্টির (এনপিপি) চেয়ারম্যান ড. ফরিদুজ্জামান ফরহাদ।

‘বিএনপি চেয়ারপারসন ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়ার নিঃশর্ত মুক্তির দাবি এবং ভারতের সঙ্গে অসম চুক্তি-সমঝোতা স্মারক’-এর প্রতিবাদে জাতীয়তাবাদী সমমনা জোট এই কর্মসূচির আয়োজন করে। সমাবেশ শেষে মিছিল নিয়ে প্রেস ক্লাবের সামনে সড়ক প্রদক্ষিণ করে জোটটি।

সমাবেশে সভাপতির বক্তৃতায় ড. ফরিদুজ্জামান ফরহাদ বলেন, ‘খালেদা জিয়াকে মিথ্যা মামলায় সাজা দেওয়া হয়েছে। সরকার নির্বাহী আদেশে তাকে সাময়িক মুক্তি দিলেও কার্যত তিনি কারাবন্দি। তিনি আজ গুরুতর অসুস্থ, হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। অবিলম্বে বিদেশে তার উন্নত চিকিৎসা দরকার। কিন্তু শুধু রাজনৈতিক প্রতিহিংসার কারণে সরকার তাকে বিদেশে চিকিৎসার সুযোগ দিচ্ছে না। তার মুক্তি আন্দোলন এখনো চলছে। তাকে আন্দোলনের মাধ্যমেই মুক্ত করা হবে।’

তিনি বলেন, ‘ভারতের সঙ্গে অসম সমঝোতা স্মারকগুলোতে বাংলাদেশের কোনো লাভ হবে না। রেল ট্রানজিটের নামে কার্যত ভারতকে করিডোর দেওয়া হয়েছে। অবিলম্বে দেশের স্বার্থবিরোধী এসব চুক্তি বাতিল করতে হবে।’

চলমান কোটাবিরোধী আন্দোলন ‘যৌক্তিক’ দাবি করে ফরিদুজ্জামান বলেন, ‘সরকারি চাকরিতে কোটা বাতিলের দাবিতে শিক্ষার্থীদের চলমান আন্দোলন অত্যন্ত যৌক্তিক। অবিলম্বে তাদের দাবি মেনে নেওয়া উচিত।’

এনপিপির মহাসচিব মোস্তাফিজুর রহমান মোস্তফার সঞ্চালনায় সমাবেশে আরও বক্তব্য দেন- সমমনা জোটভুক্ত জাগপার সভাপতি খন্দকার লুৎফর রহমান, সাধারণ সম্পাদক এসএম শাহাদাত, গণদলের চেয়ারম্যান গোলাম মওলা চৌধুরী, ন্যাশনাল ডেমোক্রেটিক পার্টির (এনডিপি) চেয়ারম্যান আবু তাহের প্রমুখ।