ঢাকা , বুধবার, ১৭ জুলাই ২০২৪, ১ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
আ.মী লীগ আয়োজিত খুলনা বিভাগীয় জনসভায়

গণতন্ত্রের ধারা অব্যাহত আছে বলে দেশের উন্নয়নটা এখন দৃশ্যমান: প্রধানমন্ত্রী

মানুষের জীবন মান উন্নয়ন করাই বর্তমান সরকারের লক্ষ্য উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, দেশে গণতন্ত্রের ধারা অব্যাহত থাকায় দেশে উন্নয়ন হয়েছে। গণতন্ত্রের ধারা অব্যাহত আছে বলেই বাংলাদেশের উন্নয়নটা এখন দৃশ্যমান। আর বিএনপির কাজ হচ্ছে ধ্বংস করা আর আগুন দিয়ে মানুষকে পুড়িয়ে মারা।

সোমবার (১৩ নভেম্বর) বিকেলে খুলনা সার্কিট হাউস মাঠে আওয়ামী লীগ আয়োজিত বিভাগীয় মহাসমাবেশে  প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, মানুষের জীবনমান উন্নয়ন করাই বর্তমান সরকারের লক্ষ্য। দেশে গণতন্ত্রের ধারা অব্যাহত থাকায় দেশে উন্নয়ন হয়েছে। গণতন্ত্রের ধারা অব্যাহত আছে বলেই বাংলাদেশের উন্নয়নটা এখন দৃশ্যমান। আর বিএনপির কাজ হচ্ছে ধ্বংস করা আর আগুন দিয়ে মানুষকে পুড়িয়ে মারা।

বিএনপি-জামায়াতের সমালোচনা করে শেখ হাসিনা বলেন, একটা সময় বিএনপি ক্ষমতায় এসে মোংলা বন্দর বন্ধ করে দিয়েছিল আর আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় আসার পর আবার তা চালু করেছে। আওয়ামী লীগ যখন ক্ষমতায় আসে তখন জনগণের উন্নয়ন হয়। বিএনপির কাজই হচ্ছে ধ্বংস করা। বিএনপি মানে সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড। আগুন দিয়ে মানুষকে পুড়িয়ে মারাই হচ্ছে বিএনপি-জামায়াতের কাজ।

খুলনাবাসীকে প্রধানমন্ত্রী আরও বলেন, খুলনায় আওয়ামী সরকার অনেক উন্নয়ন করেছে। তারপরও আজ যেগুলো উদ্বোধন করা হলো সেগুলো খুলনাবাসীর জন্য উপহার।

এর আগে বেলা পৌনে ৩টায় খুলনায় সার্কিট হাউস মাঠে খুলনায় ২৪টি উন্নয়ন প্রকল্পের উদ্বোধন ও পাঁচটি প্রকল্পের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন তিনি। এ সময় দোয়া ও মোনাজাত করা হয়। এরপর খুলনা সার্কিট হাউস মাঠে আওয়ামী লীগ আয়োজিত খুলনা বিভাগীয় জনসভায় যোগ দেন শেখ হাসিনা।

এদিন সকাল থেকেই দলীয় নেতাকর্মী ও সমর্থকদের মিছিল-স্লোগানে মুখর হয়ে ওঠে জনসভাস্থল ও আশপাশের এলাকা। নগরজুড়ে সাজ সাজ রব।

এদিকে জনসভাস্থল ও তার আশপাশের এলাকায় মানুষের চাপ নিয়ন্ত্রণে ও প্রধানমন্ত্রীর জনসভা বেশি মানুষের কাছে পৌঁছে দিতে মহানগরীতে বসানো হয়েছে ২০টি ডিজিটাল এলইডি স্ক্রিন।

জনসভা এলাকার চারদিকে বসানো হয়েছে এ স্ক্রিনগুলো। এ ছাড়া ৪০০টি মাইক স্থাপন করা হয়েছে। পাশাপাশি নিরাপত্তার চাদরে ঢেকে দেওয়া হয়েছে খুলনা নগরীকে।

আ.মী লীগ আয়োজিত খুলনা বিভাগীয় জনসভায়

গণতন্ত্রের ধারা অব্যাহত আছে বলে দেশের উন্নয়নটা এখন দৃশ্যমান: প্রধানমন্ত্রী

আপডেট সময় ০৫:৪৭:৪৬ অপরাহ্ন, সোমবার, ১৩ নভেম্বর ২০২৩

মানুষের জীবন মান উন্নয়ন করাই বর্তমান সরকারের লক্ষ্য উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, দেশে গণতন্ত্রের ধারা অব্যাহত থাকায় দেশে উন্নয়ন হয়েছে। গণতন্ত্রের ধারা অব্যাহত আছে বলেই বাংলাদেশের উন্নয়নটা এখন দৃশ্যমান। আর বিএনপির কাজ হচ্ছে ধ্বংস করা আর আগুন দিয়ে মানুষকে পুড়িয়ে মারা।

সোমবার (১৩ নভেম্বর) বিকেলে খুলনা সার্কিট হাউস মাঠে আওয়ামী লীগ আয়োজিত বিভাগীয় মহাসমাবেশে  প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, মানুষের জীবনমান উন্নয়ন করাই বর্তমান সরকারের লক্ষ্য। দেশে গণতন্ত্রের ধারা অব্যাহত থাকায় দেশে উন্নয়ন হয়েছে। গণতন্ত্রের ধারা অব্যাহত আছে বলেই বাংলাদেশের উন্নয়নটা এখন দৃশ্যমান। আর বিএনপির কাজ হচ্ছে ধ্বংস করা আর আগুন দিয়ে মানুষকে পুড়িয়ে মারা।

বিএনপি-জামায়াতের সমালোচনা করে শেখ হাসিনা বলেন, একটা সময় বিএনপি ক্ষমতায় এসে মোংলা বন্দর বন্ধ করে দিয়েছিল আর আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় আসার পর আবার তা চালু করেছে। আওয়ামী লীগ যখন ক্ষমতায় আসে তখন জনগণের উন্নয়ন হয়। বিএনপির কাজই হচ্ছে ধ্বংস করা। বিএনপি মানে সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড। আগুন দিয়ে মানুষকে পুড়িয়ে মারাই হচ্ছে বিএনপি-জামায়াতের কাজ।

খুলনাবাসীকে প্রধানমন্ত্রী আরও বলেন, খুলনায় আওয়ামী সরকার অনেক উন্নয়ন করেছে। তারপরও আজ যেগুলো উদ্বোধন করা হলো সেগুলো খুলনাবাসীর জন্য উপহার।

এর আগে বেলা পৌনে ৩টায় খুলনায় সার্কিট হাউস মাঠে খুলনায় ২৪টি উন্নয়ন প্রকল্পের উদ্বোধন ও পাঁচটি প্রকল্পের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন তিনি। এ সময় দোয়া ও মোনাজাত করা হয়। এরপর খুলনা সার্কিট হাউস মাঠে আওয়ামী লীগ আয়োজিত খুলনা বিভাগীয় জনসভায় যোগ দেন শেখ হাসিনা।

এদিন সকাল থেকেই দলীয় নেতাকর্মী ও সমর্থকদের মিছিল-স্লোগানে মুখর হয়ে ওঠে জনসভাস্থল ও আশপাশের এলাকা। নগরজুড়ে সাজ সাজ রব।

এদিকে জনসভাস্থল ও তার আশপাশের এলাকায় মানুষের চাপ নিয়ন্ত্রণে ও প্রধানমন্ত্রীর জনসভা বেশি মানুষের কাছে পৌঁছে দিতে মহানগরীতে বসানো হয়েছে ২০টি ডিজিটাল এলইডি স্ক্রিন।

জনসভা এলাকার চারদিকে বসানো হয়েছে এ স্ক্রিনগুলো। এ ছাড়া ৪০০টি মাইক স্থাপন করা হয়েছে। পাশাপাশি নিরাপত্তার চাদরে ঢেকে দেওয়া হয়েছে খুলনা নগরীকে।